1. www.bd.faridpurnews24@gmail.com : ফরিদপুর নিউজ :
মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:০৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
নামাজের ভিতরে রয়েছে ছয়টি ফরজ মধুখালীর বোয়ালিয়া থেকে রাজবাড়ির বাইপাস সড়কে খানাখন্দ, ভোগান্তিতে চালক ও যাত্রীরা ফরিদপুরে স্কুল ছাত্রী ধর্ষনের মামলায় বখাটের যাবজ্জীবন ফরিদপুরে ভার্চুয়াল স্কুলে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সালথায় অবৈধ বালু উত্তোলনের ড্রেজার পুড়িয়ে দিল প্রশাসন বোয়ালমারী জর্জ একাডেমীর সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা পরীক্ষার নামে অর্থ বাণিজ্যের অভিযোগ ফরিদপুর নতুন বাস স্ট্যান্ড: অব্যবস্থাপণা নিরসনে মেয়রের সাথে মটর ওয়ার্কার্স শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দের সাক্ষাৎ ফরিদপুরে অবৈধভাবে কাটা সরকারি রাস্তার গাছ জব্দ করলো বন বিভাগ ফরিদপুরে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা আফসার শেখ ভোগ করছে সকল সরকারি সুযোগ সুবিধা ফরিদপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক

সালথায় পাট কাটা ও পঁচনে ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষক’রা | ফরিদপুর নিউজ

  • আপডেট : মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০
  • ১৩৬ বার পড়া হয়েছে

মোহাম্মদ সুমন, ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের সালথায় চলতি মৌসুমে পাট কাটা ও পঁচনে ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষকেরা। পাট বাংলাদেশের প্রধান অর্থকারী ফসল। কৃষি প্রধান এলাকা হিসেবে ফরিদপুরের ব্যাপক সুনামও রয়েছে পাট উৎপাদনে। পরিবেশবান্দব বিবেচিনায় দেশ-বিদেশে রয়েছে পাটের ব্যাপক চাহিদা।

বিগত কয়েক বছরে পাটের দাম না পাওয়ায় এক সময়ের প্রধান অর্থকরী ফসল পাট চাষে কৃষকরা আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছিলো। কিন্তু বর্তমানে পাটের বাজার ও ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকেরা পাট চাষের হারানো ঐতিহ্য ফিরে পাচ্ছে।

উপজেলার ৮ টি ইউনিয়নের প্রতিটি এলাকায় পাট কাটা থেকে শুরু করে জাগ দেওয়া ও পাটকাঠি থেকে আঁশ ছাড়ানোর কাজে ব্যস্ত কৃষাণ-কৃষাণীরা
তবে উৎপাদন খরচের সঙ্গে বাজার মূল্যের অসমতার আশঙ্কায় রয়েছেন তারা। গত দুই বছর ফলন ও দাম কাঙ্খিত হওয়ায় এবারো সোনালি আঁশ নিয়ে স্বপ্ন দেখছেন পাটচাষিরা। উপজেলা কৃষি বিভাগ সুত্র জানায়, এ বছর লক্ষমাত্রা অনু্যায়ী ১২ হাজার ৪০ হেক্টর জমিতে পাটের চাষ হয়েছে। পাটপণ্যের দ্বিগুণ রপ্তানি বৃদ্ধি, পণ্যের মোড়কে পাটের ব্যাগ বাধ্যতামূলক ব্যবহারে বহুমাত্রিকতায় এবার পাটের আবাদ বেশি হয়েছে।

উপজেলায় রবি জাত তোষা ১৯৯৭ পাট আবাদ হয়েছে বেশি। কয়েকটি গ্রামের পাট চাষিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আষাঢ়ে বৃষ্টির পানি এবার আগে থেকে চলে আশায় পাট জাগ দিতে সুবিধা হচ্ছে তাদের। সবাই এখন পাট কেটে জাগ দেয়ার জন্য খালে-বিলে জমা হচ্ছে। প্রতি দিনই প্রায় পানি বাড়ছে, কেউ কেউ বন্যা পরিস্থিতির আশঙ্কাও করছেন তাই এবার দ্রুত পাট কেটে সবাই জাগ দেয়ায় ব্যস্ত। পাট কাটা কৃষকরা আরো জানান, মাঝে ঝর বৃস্টির কারনে কিছুটা সমস্যার পড়তে হয়েছিল তোবুও আবহাওয়া ভালো থাকায় পাটের ফলন বেশ ভালো হয়েছে। তবে অতি বৃষ্টির জন্য কিছুটা সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। বাজারে পাটের দাম ভালো হলে এ বছর একটু লাভের মুখ দেখবেন বলে আশা করছেন তারা।

উপজেলা পাট কর্মকর্তা জনাব আব্দুল বারি বলেন, আষাঢ় মাসের বৃষ্টিতে ১৫-২০% পাটের ক্ষতি হয়েছে, কিছু কিছু নিচু এলাকা তলিয়ে গেছে। এ বছর পাটের রোগবালাই ও পোকা মাকড়ের আক্রমণ কম হয়েছে। বিছা ও যাব পোকার আক্রমন শেষ পর্যায়ে দেখা গেছে তাতে তেমন কোনো ক্ষতি হয়নি। তাই এবার পাটের ফলন ভালো হবে বলে মনে করছেন তিনি। বাজার ভালো থাকলে আগামীতে আরও বেশি আবাদ হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© স্বত্ব মেহেদী হাসান সীমান্ত
টেপাখোলা বানিয়া পাড়া সড়ক,
টেপাখোলা,ফরিদপুর।
পোস্ট কোড ৭৮০০ বাংলাদেশ থেকে প্রকাশিত ও প্রচারিত।
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি
অনুমতি ছাড়া নকল করা বা কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার

You cannot copy content of this page